Thursday, May 3, 2012

মাটি...



এক খণ্ড মাটি তোলা – তোর অপুষ্টির গা থেকে ।
যাতে ধান হয়... ডাল হয়... কিংবা ভয়ানক জঙ্গল !
              বাজরাও হয় কোথাও কোথাও!
এক খণ্ড মাটি তোলা তোর অপুষ্টির গা থেকে...
মাটির পাত্রে আর রাখা নয় তাকে... ময়লা মাটি !!
আভিজাত্যে সাজানো সভ্যতার পাত্রে যত্নে তুলে রাখা...
                 একখণ্ড মাটি।
সেই যে তুলে নিলাম তোর অপুষ্টির গা থেকে...
                                    রোজ পুষ্টি জোগাই তাতে।
আর তাতে নেই... মেঠো ধান-বাজরার ভিড়।
সভ্য মাটিতে রোজ বানাই সভ্যতার বনসাই...
অসভ্য মাটি কেঁপে ওঠে... ‘ইন্দোনেশিয়া’ !!!

ধাঁধা


রাস্তাটা আরও এঁকেবেঁকে
                                      এর-ওর-তার গায়ে জট-জটিল হাল!

এক পা তুলে কখন থেকে দাঁড়িয়ে ...
                                      তোলা পা-টা ফেলি কোথায়?

চোখ খুলে কিংবা বুজে... হাজার স্বপ্ন দেখতে পারি...
সামনে বসলে, তোমায়ও দেখানো যাবে আরও কিছু স্বপ্ন।

এবার স্বপ্নকে টেনে মাটিতে নামাতে গিয়ে...
পেতে টান পড়ে না বটে...  টান পড়ে স্বপ্নের কারখানায়।

চাহিদা-যোগান... আমদানি-রপ্তানি
                                  সবের হিসেব যায় গুলিয়ে;

স্বপ্নগুলোও সক্কলে হঠাৎ এক পা তুলে দাঁড়িয়ে !!
তোলা পা- টা... ?



Wednesday, May 2, 2012

তফাৎ


তফাৎ নেই...
             একথা বলা হয়ে গেছে, বেশ গুছিয়ে।
তাই... তফাতটা রয়ে গেছে।
উনুন-ঠাসা আগুন...
নেভাতে পারি না, তাই বালি চাপা দেওয়া...
বালির স্তূপ।
বালির স্তূপে... সক্কলেই বালি...
তাই সমান সকলে।
শুধু...  
তফাৎ-টিকে বুকে নিয়ে
    ধুঁকে ধুঁকে জ্বলতে থাকে
বালি-চাপা... উনুন-ঠাসা আগুন।